সর্বশেষ সংবাদ

নড়াইলের পুলিশ সুপারের সড়ক নিরাপত্তামূলক প্রচারণা


উজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা প্রতিনিধি:নড়াইলে নিরাপদ সড়ক চলাচলের জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে সতর্কতামূলক লিফলেট প্রদান করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার (২ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ নিরাপত্তামূলক লিফলেট বিতরণসহ চালকদের মাঝে ফুলেল শুভেচ্ছা দেয়া হয়। আমাদের নড়াইল প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায়কে জানান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন (পিপিএম), এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম, পিপিএম, সহকারি পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোঃ মেহেদী হাসান, সহকারি পুলিশ সুপার (হেডকোয়ার্টার্স) মোঃ জালাল উদ্দিন, সহকারি পুলিশ সুপার (প্র.বি.) মোঃ ইশতিয়াক আহম্মেদ, নড়াইল সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন, ডিবি পুলিশের ওসি আশিকুর রহমান। নড়াইল জেলা বাস মালিক সমিতির সভাপতি সরদার আলমগীর হোসেন, সাধারণ সম্পাদক কাজী জহিরুল হক, গণমাধ্যমকর্মীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফরহাদ খান, নড়াইল জেলা অনলাইন মিডিয়া ক্লাবের সভাপতি উজ্জ্বল রায়, সাধারণ সম্পাদক মোঃ হিমেল মোল্যা, সাংগঠনিক সম্পাদক আকতার মোল্যা (বাগডাঙ্গা),পুলিশের বিভিন্ন শাখার কর্মকর্তারা। এ সময় যাত্রীবাহী বাস, মাইক্রোবাস, মোটরসাইকেল, অটোবাইকসহ বিভিন্ন ধরণের যানবাহনের কাগজপত্র যাচাই করা হয়।

পৌরসভার ব্যস্ততম সড়ক নির্মাণে নিন্মমানের উপকরণ, কাজ বন্ধের নির্দেশ

উজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা প্রতিনিধি: নড়াইলে মঙ্গলবার (২ অক্টোবর) সকাল থেকে পৌরসভার ব্যস্ততম রাস্তাটির দুই প্রান্ত পূর্ব ঘোষনা ছাড়াই বন্ধ করে দেন ঠিকাদার বাচ্চু। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েন পথচারীসহ এলাকার সাধারণ মানুষ। আমাদের নড়াইল প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায় জানান, অপরিকল্পিত ভাবে কালভাট নির্মানের কাজ শুরুর করায় নির্মাণ শ্রমিকদের ব্যবহৃত লোহার শাবলের আঘাতে মাটির নিচে থাকা পানির পাইপ ফেটে গেলে মুহুর্তেই রাস্তার মাঝে পানিতে প্লাবিত হয়ে যায়। সরজমিনে গিয়ে দেখা যায় সড়কের কালভাট নির্মাণের জন্য পুরাতন ভবনের ব্যবহৃত নিম্নমানের ইট এনে রাখা হয়েছে।
নড়াইলের লোহাগড়া পৌরসভাধীন সড়কের কালভাট নির্মাণে নিম্ন মানের উপকরণ ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে।
অভিযোগের ভিত্তিতে মঙ্গলবার (২ অক্টোবর) সকালে ঠিকাদারকে কাজ বন্ধ রাখার নিদের্শ দিয়েছেন পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী মোঃ শফিউল ইসলাম।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, পৌরসভাধীন ফয়েজ মোড় হতে খসরু ফকিরের বাড়ি পর্যন্ত চলতি অর্থবছরে ১০ লাখ ৩১ হাজার ১৪ টাকা ব্যায়ে রাস্তা সংস্কারের জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়। ২৭৫ মিটার দৈর্ঘ ও ৩.৩ মিটার চওড়া রাস্তার সংস্কারের কাজের অনুমোতি পান ঠিকাদার বাচ্চু মোল্যা।

এ বিষয়ে ঠিকাদার বাচ্চু মোল্যা সাংবাদিকদের বলেন, পাশের একটি মসজিদের ভবনে ব্যবহৃত ইট আমরা এনেছি। এই ইট দিয়ে কালভাটের সলিংএর কাজ করা হবে।
জাতীয় শ্রমিক লীগের উপজেলা কমিটির আহবায়ক দাবী করে সাইফুল ইসলাম সুমন বলেন, রাস্তার দুইপাশ বন্ধ করে নিম্নমানের উপকরণ ও পুরাতন ব্যবহৃত ইট দিয়ে কালভাট নির্মাণের পায়তারা করছে ঠিকাদার। ইতিমধ্যে এসব উপকরণ ঠিকাদারের লোকজন নিয়েও এসেছে। আমাদের দাবী কাজের সিডিউল মোতাবেক সঠিক উপকরণ দিয়ে কাজ করতে হবে।

লোহাগড়া এম.এ.হক কারিগরি ও বানিজ্যিক মহাবিদ্যালয়ের কম্পিউটার শিক্ষক কাজী গোলাম মোস্তফা বলেন, রাস্তা সম্পুর্ণ বন্ধ করে এধরনের সংস্কার সাধারণ পথচারী চলাচলে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। আমার পরামর্শ রাস্তার অর্ধেক খোলারেখে যদি কর্তৃপক্ষ সংস্কারের কাজ করেন তাহলে এ প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হবে না।

পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ আনিসুর রহমান ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, দীর্ঘ দিনের অবেহেলিত এই রাস্তায় নিম্নমানের উপকরণ সামগ্রী দিয়ে কাজ করছে ঠিকাদার। আমি প্রতিবাদ করায় কাজ বন্ধ ছিল। বিশেষ প্রয়োজনে ঢাকায় যখনই এসেছি ঠিক তখনই আমার অনুপস্থিতিতে ঠিকাদার পুনরায় নিন্ম মানের ইট দিয়ে কালভাট নির্মাণের কাজ শুরু করেছে। আমি এর তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।
লোহাগড়া পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী মোঃ শফিউল ইসলাম, আমাদের নড়াইল প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায়কে জানান, কালভাট নির্মাণের কাজ পরিদর্শনে গিয়ে দেখি কালভাট তৈরির উদ্দেশ্যে ঠিকাদার পুরাতন ব্যবহৃত ইট এনে রেখেছে। যা নিয়ম বহির্ভূত। তাই কাজ বন্ধ করে দিয়েছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Powered by Dragonballsuper Youtube Download animeshow