সর্বশেষ সংবাদ

সিংড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন চান ভোলা


সিংড়া (নাটোর) প্রতিনিধি: নাটোরের সিংড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন প্রত্যাশী উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধ্রাণ সম্পাদক জাহেদুল ইসলাম ভোলা সাংবাকিদদের সাথে মতবিনিময় করেছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে পৌর শহরের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সিংড়া মডেল প্রেস ক্লাবের সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে প্রার্থীতা ঘোষণা দেন। এসময় সিংড়া পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর দেদার হায়াত বেনু, জেলা পরিষদ সদস্য সালাহ উদ্দিন আল আজাদ ছানা, রায়হান কবির টিটু, সিংড়া মডেল প্রেস ক্লাবের সভাপতি রাজু আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম, সহ সভাপতি আনোয়ার হোসেন আরিফ, খলিল মাহমুদ, কার্যনির্বাহী সদস্য মাহাবুব আলম বাবু সহ প্রেস ক্লাবের অন্য সদস্যবৃন্দ এবং জাহেদুল ইসলাম ভোলার কর্মী সমর্থকরা উপস্থিত ছিলেন।
জাহেদুল ইসলাম ভোলা ১৯৯১ সালে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার মাধ্যমে রাজনৈতিক জীবনে পদার্পন করেন। ৬ বছর ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন শেষে ১৯৯৭ সালে উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং ৯৮ সালে উপজেলা যুবলীগের পূর্নাঙ্গ কমিটিতে সভাপতি নির্বাচিত হয়ে ১৪ বছর দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে জাহেদুল ইসলাম ভোলা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং চৌগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান। এর আগেও তিনি চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ছিলেন। দীর্ঘ ত্যাগ, তীতিক্ষার রাজনৈতিক জীবনে তিনি সমাজসেবা মূলক বিভিন্ন কাজের সাথে জড়িত ছিলেন। তাই দল থেকে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তাকে মনোনয়ন দেয়া হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তবে দলীয় মনোনয়ন না পেলে দলের সিদ্ধান্ত মেনে দল যাকে মনোনয়ন দেয়া হবে তার পক্ষে কাজ করবেন বলে জানান।

 

সিংড়ায় স্কুল শিক্ষার্থী নিখোঁজ ॥ থানায় জিডি
সিংড়া (নাটোর) প্রতিনিধি
নাটোরের সিংড়ায় নিখোঁজের ৩দিন পেরিয়ে গেলেও সন্ধান পাওয়া যায়নি রাতুল হোসেন (১৬) নামে এক স্কুল শিক্ষার্থীর। রাতুল উপজেলার চৌগ্রাম ইউনিয়নের দিনমজুর উমর আলীর ছেলে। সে পাকুরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির ছাত্র। এদিকে ছেলের সন্ধান না পেয়ে বুধবার সিংড়া থানায় সাধারণ ডায়েরী ( জিডি নং- ৩৯৩, তারিখ: ০৯.০১.১৯) করেছেন রাতুলের বাবা উমর আলী।
উমর আলী জানান, আমি দিন মজুরের কাজ করি। আমার ছেলে রাতুল পড়াশোনার পাশাপাশি চৌগ্রাম বাজারে দেলোয়ার হোসেনের মৎস্য আড়তে সহযোগির কাজ করতো। মঙ্গলবার সকালে কাজ করার সময় মাছ পরিমাপক যন্ত্র ভেঙ্গে ফেলে। পরে রাতুল সেই পরিমাপক যন্ত্র উপজেলা সদরে মেরামতের জন্য নিয়ে আসার সময় নিখোঁজ হয়। পরে আত্মীয় স্বজনদের বাড়িতে অনেক খুঁজাখুজি করা হয়েছে কিন্তু সন্ধান পাওয়া যায়নি। দুপুরে ছেলের ব্যবহৃত মোবাইলের দুটি নম্বরে (০১৭৪৩-০৩৬৮৭২, ০১৪০০-১২০৯৪৬) ফোন গেলেও পরবর্তী থেকে বন্ধ বলছে। রাতুলের গায়ের রং ফর্সা, উচ্চতা ৫.৬, মুখোমন্ডল লম্বাটে, চুল- কালো, গড়ন- হালকা পাতলা, নিখোঁজের সময় পড়নে জিন্স প্যান্ট ও টুপিওয়ালা খয়েজি রঙের জ্যাকেট এবং পায়ে বার্মিজ সেন্ডেল ছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Powered by Dragonballsuper Youtube Download animeshow