সর্বশেষ সংবাদ

অনুমতি ছাড়া মোবাইল কল রেকর্ড করা নাজায়েজ

ফকীর শাহ < এশিয়ানবার্তা ডেস্ক > প্রযুক্তির কু-যুক্তিতে পড়ে আমরা আহরহ হারাম কাজে লিপ্ত হচ্ছি। নিজেকে বেশি চালাক ভেবে এখন আমরা খুব সহজেই পাপ করছি। ইচ্ছা হলেই আমরা অপর প্রান্তে থেকে কথা বলা লোকের কথা নিজের মোবাইলে রেকর্ড করছি। আপনি যার সাথে মোবাইলে কথা বলছেন, তার অনুমতি ছাড়া যদি তার কথা আপনার মোবাইলে রেকর্ড করেন; তাহলে সেটা পাপ। বিনা অনুমতিতে মোবাইলে অন্যের কথা রেকর্ড করা একটা নাজাজে কাজ। ইসলামে ধর্মে এটা নিষেধ। আপনি মুসলমান হলে এটা করতে পারেন না। যার সাথে কথা বলছেন তার অনুমতি নিয়ে রেকর্ড করলে পাপ হবে না।

যখন খুশি যার তার গোপন ফোনালাপ ফাঁস করা প্রচলিত আইনে নিষিদ্ধ হলেও তা আমাদের দেশে এখন অহরহ হচ্ছে। আবার মোবাইল ফোনে অনুমতি ছাড়া একজন আরেকজনের কথা রেকর্ড করা ইসলামে নাজায়েজ হলেও আমরা তা অহরহ করছি। সম্প্রতি বিশ্বের ঐতিহ্যবাহী ইসলামী বিদ্যাপিঠ দারুল উলুম দেওবন্দ থেকে কল রেকর্ড করার ব্যাপারে জারি করা হয়েছে একটি গুরুত্বপূর্ণ ফতোয়া৷

ফতোয়াতে বলা হয় অনুমতিবিহীন, পারস্পারিক কথা বার্তা বা কল রেকর্ড করা সম্পূর্ণরূপে নাজায়েজ৷ অনুমতি ব্যাতিরেকে কল রেকর্ডকে নাজায়েজ বলে, এহেন কাজ থেকে বিরত থাকতেও গুরাত্বারোপ করেছে দারুল উলুম দেওবন্দ৷

দারুল উলুম দেওবন্দ থেকে সদ্য প্রকাশিত হওয়া ১৪৮৩৭০ নং ফতোয়াতে বলা হয়, একে অপরের অনুমতি না নিয়ে পারস্পারিক কথোপকথন রেকর্ড নাজায়েজ৷ তাই উক্ত কাজ থেকে বিরত থাকা চাই সবার৷ ফতোয়াটি প্রকাশের পরপরই এটি ছড়িয়ে পড়ে ভারতীয় গণমাধ্যমে৷ ইতিমধ্যে বেশ আলোচিতও হয়ে পড়েছে ফতোয়াটি৷

কল রেকর্ডকে নাজায়েজ বলে দেওবন্দ থেকে জারি করা উক্ত ফতোয়াতে বলা হয়, ইসলামী শিষ্টাচার অনুযায়ি দুই ব্যক্তির পারস্পারিক কথা-বার্তা উভয়ের মাঝে আমানত৷ তাই এই কথোপকথন অনুমতি ব্যাতিরেকে রেকর্ড করা এবং রেকর্ড করে অন্য কোনো খাতে ব্যবহার করা আমানতের খেয়ানত৷ আর আমানাতের খেয়ানত করা যেহেতু নাজায়েজ তাই বিনা অনুমতিতে কল রেকর্ডও নাজায়েজ৷
তথ্যসূত্র: দেওবন্দের ওয়েবসাইট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Powered by Dragonballsuper Youtube Download animeshow