সর্বশেষ সংবাদ

ট্রেনে বিচারপতির নির্ধারিত কেবিনে নারী যাত্রীর অবস্থান : আটক ২

মঈন উদ্দীন, রাজশাহী: রাজশাহী পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের আওতাধীন পঞ্চগড় থেকে ঢাকাগামী একতা এক্সপ্রেস ট্রেনে বিচারপতির জন্য বরাদ্দকৃত কেবিনে অবৈধভাবে একজন নারী যাত্রীকে থাকার জায়গা করে দেন একজন স্টুয়ার্ড। পথে জয়পুরহাট স্টেশন থেকে ওই বিচারপতি ট্রেনে উঠে দেখেন তার জন্য নির্ধারিত কেবিনটি বন্ধ রয়েছে। এসময় বার বার তাগাদা দেয়ার পর ওই নারী যাত্রী কেবিনের দরজা খুলেন। পরে তাকে বিচারপতির কেবিনটি ছেড়ে দিতে বলা হয়। কিন্তু ওই কেবিনটি তিনি ছাড়তে অস্বীকৃতি জানান এবং দুর্ব্যহার করেন। এতে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয় বিচারপতিকে।
এ ঘটনায় রেলের স্টুয়ার্ড সজিব ও ওই নারী যাত্রীকে আটক করে নিয়ে যায় পুলিশ। রোববার দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে।
রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের আওতাধীন একতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি রোববার রাত ৯টায় ঢাকার উদ্দেশ্যে পঞ্চগড় স্টেশন ছেড়ে যায়। পথে ট্রেনটি জয়পুরহাটে পৌঁছায় রাত সোয়া ১টার দিকে। এসময় ওই ট্রেনে উঠেন উচ্চ আদালতের একজন বিচারপতি ও তার পরিবারের সদস্যরা।
এ ব্যাপারে ট্রেনের ওয়ার্কিং গার্ড সবুর খাঁন ও কণ্টাক্টর গার্ড রফিকুল ইসলাম জানান, ওই নারী যাত্রী দিনাজপুর স্টেশন থেকে ট্রেনে উঠেন। পরে তিনি বিচারপতির জন্য নির্ধারিত কেবিনে গিয়ে অবস্থান করেন। এরপর জয়পুরহাট স্টেশন থেকে উঠেন বিচারপতি ও তার পরিবারের সদস্যরা। পরে বিচারপতির জন্য নির্ধারিত কেবিনটি ওই নারী যাত্রীকে ছেড়ে দিতে বলা হয়। কিন্তু ওই নারী কেবিনটি ছাড়তে অস্বীকৃতি জানান এবং দুর্ব্যহার করেন। এতে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয় বিচারপতিকে। পরে বিচারপতির সাথে থাকা জয়পুরহাট সদর থানার প্রটোকল পুলিশ রেলের স্টুয়ার্ড সজিব ও ওই নারী যাত্রীকে আটক করে নিয়ে যায়।
এ ব্যাপারে জানতে যোগাযোগ করা হলে জয়পুরহাট সদর থানার ওসি রেলের স্টুয়ার্ড ও ওই নারী যাত্রীকে আটকের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, এ ব্যাপারে কেউ অভিযোগ দায়ের না করায় মুচলেকা নিয়ে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়েছে। তবে রেলওয়ের একাধিক সূত্র জানায়, মূলত কর্তব্যে অবহেলার কারণে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ব্যাপারে রেলওয়ে দায় এড়াতে পারে না।

রাজশাহীতে রেলের জায়গায়
অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ শুরু
মঈন উদ্দীন, রাজশাহী: রাজশাহীতে রেলের জায়গায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল থেকে এ অভিযান শুরু হয়। এর আগে গত ১৬ মার্চ রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ অবৈধ স্থাপনার মালিকদের নোটিশ দিয়ে অবৈধা স্থাপনা সরিয়ে নেওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়। সে অনুযায়ী মঙ্গলবার সকাল থেকে উচ্ছেদ অভিযান শুরু করে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।
নগরীর কাশিয়াডািঙ্গা এলাকা রেললাইনের দুই ধারে অবস্থিত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ শুরু করে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। এরপর পর্যায়ক্রমে নগরীর রেলগেট পর্যন্ত এ অভিযান চালানোর কথা রয়েছে।
এদিকে ছিন্নমূলের বাসিন্দারা উচ্ছেদের শিকার হয়ে এখন খোলা আকাশই তাদের ভরসা হয়ে দাঁড়িয়েছে। সকাল থেকে উচ্ছেদ অভিযান শুরুর পর অনেকেই শিশু সন্তানদের নিয়ে খোলা আকাশের নিচে অবস্থান নেন। নিজের শেষ সম্বলটুকুও অনেকেই রক্ষা করতে পারেননি উচ্ছেদের কারণে। ফলে চরম বিপাকে পড়েন নগরীর কোর্ট স্টেশন, বহরমপুর, পাঠার মোড়সহ বিভিন্ন এলাকার শত শত ছিন্নমূলের মানুষরা। কোর্ট স্টেশন এলাকার বাসিন্দা রোকেয়া বেগম বলেন, এখন কোথায় যাবো, কি খাবো বুঝতে পারছি না। সব নিমিষেই চুরমার করে দিয়েছে রেলওয়ের শ্রমিকরা।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Powered by Dragonballsuper Youtube Download animeshow