সর্বশেষ সংবাদ

সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে গৃহবধূকে জবাই করে হত্যার চেষ্টা

আমিনুল ইসলাম হিরো,সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি : সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলার চরচালা গ্রামের রুপা খাতুন (৩০) নামের এক গৃহবধূকে
কুপিয়ে ও জবাই করে হত্যার চেষ্টা করে তার স্বামী বুদ্দু মিয়া (৪০)। তাকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর
রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থা আশংকাজনক। বেলকুচি
থানার ওসি আনোয়ারুল ইসলাম জানান, উক্ত উপজেলার তেঁয়াশিয়া গ্রামের মৃত হানিফ খলিফার
ছেলে বুদ্দু মিয়ার সঙ্গে একই এলাকার বেড়াখারুয়া গ্রামের ইসমাইল হোসেন তালুকদারের
মেয়ে রুপা খাতুনের বিয়ে হয় প্রায় ১০ বছর আগে। তারা চরচালা গ্রামের হাজী লুৎফর রহমানের
বাড়ীতে ভাড়া থাকেন। বিয়ের পর থেকেই তাদের পারিবারীক কলহ চলে আসছিল। এরই জের ধরে শুক্রবার বিকেলের দিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে স্ত্রী রুপাকে জবাই করে হত্যার চেষ্টা করে তার স্বামী বুদ্দু এ সময় গৃহবধূর চিৎকারে প্রতিবেশীরা ঘটনাস্থলে এলে নিষ্ঠুর স্বামী পালিয়ে যায়। তাকে রক্তাক্ত ও
মূমুর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে। প্রথমে সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ
ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এখানে তার অবস্থার অবনতি হলে
তাকে শনিবার ভোর রাতে উল্লেখিত হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন
করেছে এবং এ ব্যাপারে খুব শীঘ্রই সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

 

 

সিরাজগঞ্জে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকে পুলিশ পরিচয়ে তুলে নেয়ার অভিযোগ,অস্বীকার করছেন পুলিশ

আমিনুল ইসলাম হিরো, সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি : স্বেচ্ছাসেবক দল সিরাজগঞ্জ শহর শাখার আহ্বায়ক সানোয়ার হোসেন সানুকে শুক্রবার দুপুরে সাদা পোশাকে পুলিশ তুলে নেয়ার পর অস্বীকার করছে বলে অভিযোগ করেছেন স্বজন ও বিএনপি নেতারা। উদ্বিগ্ন স্বজন ও নেতারা সানু’র সন্ধান দাবি করেছেন। শুক্রবার ইফতারের পর দলীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সিরাজগঞ্জ জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক সাইদুর রহমান বাচ্চু বলেন, বিকালে শহরের মালশাপাড়া কবরস্থানে এক বিএনপি নেতার জানাযা শেষে রিক্সাযোগে বাড়ি ফিরছিলেন স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা সানু। তিনি স্টেডিয়াম রোড এলাকায় পৌঁছলে সাদা পোশাকধারী সদর থানার দুই পুলিশ কর্মকর্তা (এসআই) তাকে একটি মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে থানায় যোগাযোগ করা হলে পুলিশ সানুকে আটকের বিষয়টি অস্বীকার করছে। তিনি আরও বলেন, সানুর বিরুদ্ধে রাজনৈতিক মামলা থাকলেও প্রায় সব মামলাতেই জামিনে রয়েছেন। তাকে আটকের পর পুলিশ কোর্টে সোপর্দ না করে গোপন রাখায় বিএনপি নেতাকর্মীসহ পরিবারের স্বজনদের মধ্যে আতঙ্কে বিরাজ করছে। সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি নেতা নাজমুল হাসান রানা, আবু সাইদ সুইট, যুবদল সভাপতি মির্জা আবদুল জব্বার বাবু, সাধারন সম্পাদক বরাত হোসেন, সেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি আনোয়ার হোসেন রাজেশসহ দলীয় নেতাকর্মী ও সানুর বাবা-মা, ভাই ও স্ত্রী-সন্তানরা উপস্থিত ছিলেন। এদিকে শুক্রবার রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, সানুকে আটকের পর অস্বীকারের ঘটনা নিঃসন্দেহে অশুভ উদ্দেশ্য প্রণোদিত। দেশের মানুষ এখন চরম অশান্তি ও গভীর শঙ্কার মধ্যে দিনযাপন করছে। সানু নিখোঁজ থাকার ঘটনায় তার পরিবার ও বিএনপি নেতাকর্মীরা গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। অপরদিকে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু দাবি করেছেন, সানুকে সাদা পোশাকে পুলিশ তুলে নেয়ার পর অস্বীকার করায় এখন আশঙ্কা হচ্ছে তাকে গুমও করা হতে পারে। এ বিষয়ে শনিবার বিকেলে সদর থানার ওসি মোহাম্মদ দাউদ জানান, সানুকে পুলিশ আটক করেনি। এমনকি এ বিষয়ে তার কাছে কোন তথ্য নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Powered by Dragonballsuper Youtube Download animeshow